তরুণ নেতা-নেত্রীদের দিয়ে মাদক-যৌন ব্যবসায় জড়াচ্ছে বিএনপি

0
147
তরুণ

দল ক্ষমতায় যেতে না পারায় ও আওয়ামী লীগের কৌশলের কাছে বার বার পরাজয় বরণ করে চরম হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন বিএনপির তরুণ নেতৃত্ব। বিশেষ করে সদ্য ছাত্রদল ও যুবদল থেকে বিএনপিতে পদ পাওয়া নেতারা বেশি হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। আর হতাশাগ্রস্ত এ সকল নেতাকর্মীদের কাজে লাগাতে ভিন্ন রকম এক কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। যেখানে যে সকল নেতাকর্মী ব্যবসা করতে চান তাদের সেই সুযোগ দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এমনকি স্বেচ্ছায় কোনো নেতাকর্মী মাদক-যৌন ব্যবসা করতে চাইলে তাদেরও লোকচক্ষুর অন্তরালে সেই ব্যবসা করার সুযোগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ লেখক-বুদ্ধিজীবীকে কুপিয়ে হত্যা, উদ্ধারকারীদের ওপরই দোষ চাপানোর চেষ্টা

গোপন সূত্রের বরাতে জানা যায়, শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে এক ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে ছাত্রদল, ছাত্রদল ও বিএনপির বিভাগীয় পর্যায়ের তরুণ নেতাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ ঘোষণা দেন বিএনপির এ শীর্ষ নেতা। তারেক রহমানের বিশ্বাস, এ নতুন ব্যবসায়িক কর্মসূচির মাধ্যমে হতাশাগ্রস্ত নেতাকর্মীদের একদিকে যেমন অর্থের যোগান মিলবে ঠিক তেমনি মনের প্রশান্তিও মিটবে।

সূত্র বলছে, তারেক রহমানের এ কর্মসূচিকে সময়োপযোগী বলে ইতোমধ্যেই দলীয় একটি পক্ষ স্বাগত জানিয়েছে। তাদের মতে, বিনা কর্মসূচিতে ঘরে বসে থাকার চাইতে ব্যবসা করে অর্থ উপার্জন করাই শ্রেয়। আবার আরেকটি পক্ষ তারেক রহমানের এ ধরনের কর্মসূচিকে আত্মঘাতী বলে আখ্যা দিয়েছে। তারা মনে করে, তারেক রহমান হতবুদ্ধি সম্পন্ন এক কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন যার ফলে দলীয় নেতাকর্মীরা পুরোপুরি আদর্শচ্যুত হয়ে নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যাবেন।

[তরুণ নেতা-নেত্রীদের দিয়ে মাদক-যৌন ব্যবসায় জড়াচ্ছে বিএনপি]

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পদবঞ্চিত ছাত্রদলের এক সাবেক নেতা বলেন, আমাদের নেতা তারেক রহমান এক ভিন্ন রকম কর্মসূচির বার্তা দিয়েছেন। যা দলের মধ্যে বিভাজনের সৃষ্টি করেছে। দলের সন্ত্রাসী পক্ষের একটি গ্রুপ এ কর্মসূচিকে স্বাগত জানিয়েছে। আমরা তীব্র বিরোধিতা করাই আমাদেরকে পদবঞ্চিত করা হচ্ছে। আর যাই হোক পদের জন্য মাদক-যৌন ব্যবসার মতো হারাম কাজে জীবন থাকতে জড়িত হবো না বলেই আমি সাফ জানিয়ে দিয়েছি।

আরও পড়ুনঃ প্রতিবারই নির্বাচনের আগে মোটা অংকের টাকা বাগিয়ে নেন তারেক

এদিকে তারেকপন্থী নেতা ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের আহ্বায়ক শরীফ উদ্দিন জুয়েল বলেন, বিএনপির কাণ্ডারি তারেক রহমান যে কর্মসূচিই গ্রহণ করবেন তার সঙ্গে আমরা ছিলাম, আছি আর থাকবো। তিনি কাউকে জোর করে কোনো কর্মসূচিতে যোগ দিতে বলেননি। এটা একান্তই নেতাকর্মীদের ব্যক্তিগত বিষয়। কে ব্যবসা করবেন আর কে করবেন না এটা যার যার ব্যক্তিগত বিষয়। এটাকে দলীয় কর্মসূচি হিসেবে প্রচার করে একটি পক্ষ তারেক রহমানের নামে মিথ্যাচার করার চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুনঃ

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে