লোডশেডিংকে পুঁজি করে বিএনপি গুজব ছড়াচ্ছে

0
268
লোডশেডিং

বর্তমানে সারাদেশ শতভাগ বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত থাকলেও গুজব ছড়াচ্ছে বিএনপি। এই গুজব ছড়িয়ে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করছেন দলটির নেতারা। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই দলের নেতাদের সরব দেখা যাচ্ছে।

গত ১০ বছরে বাংলাদেশের জনগণ নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎসুবিধা পেয়ে আসছেন। ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত জোট আমলে মাত্র ৪০ ভাগ মানুষ বিদ্যুতের আওতায় ছিল। এরপর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে শতভাগ পরিবারে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছে।

এখন বিএনপি আন্দোলনের নামে সাময়িক লোডশেডিংকে পুঁজি করছে। বিশেষ করে শহরাঞ্চলের মানুষের মধ্যে দলটির নেতারা নেতিবাচক ধারণা তৈরি করছেন। তবে লোডশেডিংকে পুঁজি করে রাজপথে আন্দোলন করার বিষয়কে অবাস্তব ও হাস্যকর বলছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

[লোডশেডিংকে পুঁজি করে বিএনপি গুজব ছড়াচ্ছে]

তারা বলছেন, বিএনপির নিজস্ব কোনো ইস্যু নেই। নেই কোনো কর্মসূচিও। দলটি কখনোই জনস্বার্থে রাজপথে নামেনি। উল্লেখযোগ্য কোনো কর্মসূচিও দেয়নি। এখন দেশবাসী যেখানে শতভাগ বিদ্যুতের সুফল ভোগ করছে সেখানে বিএনপি নেতারা গুজব ছড়াচ্ছেন। নেতিবাচক কথা বলে যাচ্ছেন। কিন্তু এতে তেমন কোনো লাভ হবে না। কারণ দেশবাসী জানে, এর আগে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন মনে রাখার মতো কি উন্নয়ন করেছিল তা কেউ বলতে পারবে না। তখন তারা বিদ্যুতের নামে খাম্বা বসিয়ে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। জনগণের কাছ থেকে টাকা নিয়ে উল্টো তাদেরই দুর্ভোগে ফেলেছে।

আরও পড়ুনঃ

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা আরো বলছেন, লোডশেডিংকে পুঁজি করে বিএনপির সরকার পতন আন্দোলন কখনই বাস্তবে রূপ নেবে না। এ আন্দোলন কোনো রাজনৈতিক বিচার-বিবেচনায় সঠিক নয় বলেও মনে করেন তারা।

[লোডশেডিংকে পুঁজি করে বিএনপি গুজব ছড়াচ্ছে]

তারা বলছেন, বিএনপি বিদ্যুৎ নিয়ে সরকারের সমালোচনা করবে কোন মুখে। বিভিন্ন সময়ে কয়েক দফায় বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় দেশে বিদ্যুতের যে অবস্থা ছিল সেই অবস্থাটা মানুষ ভুলে যায়নি।

আরও পড়ুনঃ

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে